সাংবাদিক নিয়োগঃ
আজকের নোয়াখালী শিক্ষানবীশ সাংবাদিক নিয়োগ - আগ্রহীরা সিভি পাঠিয়ে দিন আমাদের মেইলঃ ajkernoakhali2019@gmail.com এ
রোমো রোমিওর সংগীত জীবনের কিছু কথা

রোমো রোমিওর সংগীত জীবনের কিছু কথা

সংগীত জীবনে অনেক কিছুর রচনা দ্বারাই সংগীত জীবন শুরু হয়। এবং জীবনের অনুভূতি গুলোই সংগীতে মাখিয়ে একজন শিল্পী স্বপ্নের দুয়ারে দাড়িয়ে স্বপ্ন দেখতে থাকে ।

“দু:খ-কষ্ট-বেদনায় জীবনমাখা
প্রেমহীন কল্পকের সুর আকা”

আমার ভাবনায় প্রকৃত যারা সংগীত সাধক আমার ভাষায় তাদেরকে বলি ‘ঋক্ষসদন’ ( ধর্ম কামনা নিজ আধ্যাত্মিক ঐশ্বরিকধনা, সহজ অর্থে “তারার সাধনা” )। অর্থাৎ আমার কাছে সংগীতের কিছু স্বরের অবয়ববিশিষ্ট অনুভূতি প্রকাশ হলো :

স = নিজ
ঋ = ধর্ম
ক্ষ = কামনা
দ = আধ্যাত্মিকতা
ন = ঐশ্বরিকতা (স্বগীয়নুভূতি)

প্রকৃত অর্থে দু:খ-কষ্ট-বেদনা মাখা প্রেমহীন কল্পক বাধতে চায় সুর। কখনো সেই এলোমেলো সুরে ভাসে জীবনের অদ্ভূত ভাললাগার অনুভূতি । পৃথিবীটা আবার যেন নতুন কোন প্রেমে পড়েছে। তখন সেই স্বপ্নের সুর হঠাৎ করুন যখন ঐ পৃথিবীটাকে ধোকা দেয় বোকা বানিয়ে মিথ্যামানব ।

আমি প্রধানত আধ্যাত্মিকতা,ধর্ম,কামনা,প্রকৃতির অবয়ব অবলম্বনে গান,সুর ও সংগীত রচনা করি। এছাড়া বিভিন্ন ভাষাতত্ত্ব,সংখ্যাতত্ত্ব ও রাশিমালা সংগীততে বেশ অবদান রাখার চেষ্টা করি। আমার সৃষ্ট ‘মীমবারো’ রাগ বিশেষ সংগীতিক চিহ্ন । এ রাগে ‘খোদাবান’ গান এক ধরনের বিশেষ কীর্তি ।

“উদারার স্ তে মুদারা স প্রেমাগ্ন
তারার র্স যোগে শয়তানি স্বপ্ন”

একজন সংগীত শিল্পীকে অনেক মহৎ,উদার মনের হতে হয়। অকাতরে সংগীতবিদ্যা দান করা উচিত । অন্যদিকে ভ্রমনের আনন্দ ও প্রকৃতির ভালবাসা প্রয়োজনও বটে সুর সাধকের।

শেয়ার করুন