সাংবাদিক নিয়োগঃ
আজকের নোয়াখালী শিক্ষানবীশ সাংবাদিক নিয়োগ - আগ্রহীরা সিভি পাঠিয়ে দিন আমাদের মেইলঃ ajkernoakhali2019@gmail.com এ
নওয়াজউদ্দিনের সেসব কথা মিথ্যা?

নওয়াজউদ্দিনের সেসব কথা মিথ্যা?

নীহারিকা সিং, নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকী ও সুনিতা রাজওয়ার
‘অ্যান অর্ডিনারি লাইফ: এ মেমোর’, বলিউড অভিনেতা নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকীর আত্মজীবনী। বইটি প্রকাশিত হয়েছে এই অক্টোবর মাসে। আত্মজীবনীর একটি অধ্যায়ে নওয়াজউদ্দিন মন খুলে তাঁর সব প্রেমের কথা বলেছেন। প্রেমের কথা বলায় কোনো সমস্যা নেই। কিন্তু সেখানে এই তারকা তাঁর সাবেক প্রেমিকাদের নাম প্রকাশ করেছেন। নওয়াজউদ্দিনের প্রেমিকার তালিকায় আছেন নাট্যকর্মী, বলিউড অভিনেত্রী থেকে শুরু করে শ্বেতাঙ্গিনী ওয়েট্রেস পর্যন্ত। এর মধ্যে দুজন নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকীর বিরুদ্ধে মিথ্যা গল্প ফাঁদার অভিযোগ এনেছেন। তাঁরা বলছেন, নিজের বইয়ের কাটতি বাড়ানোর জন্য জীবনের গল্পগুলোতে রং–মসলা মাখিয়েছেন নওয়াজউদ্দিন।

নওয়াজউদ্দিনের ‘মিস লাভলি’ সিনেমার সহশিল্পী ও সাবেক প্রেমিকা নীহারিকা সিং প্রথম এই অভিনেতার বিরুদ্ধে মুখ খুলেছেন। নওয়াজউদ্দিন তাঁর আত্মজীবনীতে লিখেছেন, নীহারিকার বাড়িতে প্রথম যেদিন তিনি আমন্ত্রণ পান, সেদিনই নাকি তাঁকে কোলে তুলে শোবার ঘরে ঢুকেছিলেন। নিজের দোষ স্বীকার করে এই তারকা সেখানে আরও বলেন, নীহারিকার সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক ছিল স্রেফ শারীরিক। সারা দিন নাকি তিনি এই প্রেমিকাকে মনেই করতেন না। কেবল রাত কাটাতে যান সেখানে। আত্মজীবনীর এই অধ্যায় নিয়ে গণমাধ্যমে লেখালেখি হলে বিষয়টি নীহারিকার নজরে আসে। তিনি বলেন, ‘এসব তথ্য মিথ্যা, বানোয়াট ও অতিরঞ্জিত।’ নওয়াজউদ্দিনের এই জীবনীতে নীহারিকার কথা টেনে আনা হয়েছে, অথচ বিষয়টি নিয়ে এই নায়িকাকে আগে কিছুই জানানো হয়নি। না জানিয়ে তাঁর নাম ব্যবহার করায় ক্ষুব্ধ হয়েছেন নীহারিকা।

এদিকে আত্মজীবনীতে নওয়াজউদ্দিন যাকে তাঁর প্রথম প্রেমিকা বলে দাবি করেছেন সেই সুনিতা রাজওয়ার ফেসবুকে এই তারকার উদ্দেশে একটি খোলা চিঠি লিখেছেন। সেই ফেসবুক পোস্টে সুনিতা বলেন, আগে থেকেই মানুষের সহানুভূতি কুড়ানো নওয়াজউদ্দিনের স্বভাব। তিনি আরও বলেন, ‘বইয়ে নওয়াজউদ্দিন লিখেছেন, ন্যাশনাল স্কুল অব ড্রামায় পড়ার সময় আমাদের কোনো দিন দেখা হয়নি। এটি ডাহা মিথ্যা কথা। আমরা তখন ঘনিষ্ঠ ছিলাম না ঠিকই, কিন্তু আমাদের বেশ কয়েকবার দেখা হয়েছে।’

নওয়াজউদ্দিনের মিরা রোডের বাসার দেয়ালে আঁকিবুঁকি করা প্রসঙ্গে সুনিতা বলেন, ‘যেখানে আমি এমন কিছুই আঁকিনি, সেখানে সাদা রং দিয়ে নওয়াজউদ্দিন কী ঢাকতে গেলেন আমি বুঝলাম না।’ ‘মাঝি: দ্য মাউন্টেনম্যান’ ছবির তারকা নওয়াজউদ্দিনের লেখায় প্রকাশ পায় সুনিতা তাঁকে ধোঁকা দিয়েছেন। তিনি লিখেছেন, তাঁর সংগ্রামী জীবন ও দারিদ্র্য দেখে সুনিতা প্রেম ছেড়ে পালিয়ে গেছেন। এই কথার জবাবে সুনিতা বলেন, ‘আদতে বিষয়টা এমন নয়, নওয়াজ। তুমি কী করে ভুলে যাও যে আমি তখন তোমার থেকেও সংগ্রামী একজন শিল্পী ছিলাম। আমি তোমাকে তোমার দারিদ্র্যের জন্য ছাড়িনি, ছেড়েছি তোমার দরিদ্র মানসিকতা ও হীন চিন্তাভাবনার জন্য।’

পুরোনো প্রেমিকাদের দাবি, তাঁদের ছোট করে নওয়াজউদ্দিন নিজের ফায়দা লুটতে চেয়েছেন। এখন পর্যন্ত এই বিষয়ে নওয়াজউদ্দিন অবশ্য কোনো বক্তব্য দেননি। ক্ষমা না চাইলে হয়তো তাঁর নামে মানহানির মামলাও দিতে পারেন সাবেক দুই প্রেমিকা।
ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস

শেয়ার করুন