সাংবাদিক নিয়োগঃ
আজকের নোয়াখালী শিক্ষানবীশ সাংবাদিক নিয়োগ - আগ্রহীরা সিভি পাঠিয়ে দিন আমাদের মেইলঃ ajkernoakhali2019@gmail.com এ
মাইজদীতে বুক-পেট জোড়া লাগা যমজ কন্যাশিশুর জন্ম

মাইজদীতে বুক-পেট জোড়া লাগা যমজ কন্যাশিশুর জন্ম

রাইহাতুল ইসলাম রাহাত:   জন্মগত ত্রুটি নিয়ে নোয়াখালী জেল শহর মাইজদীর একটি প্রাইভেট হাসপাতালে যমজ দুই কন্যা শিশুর জন্ম হয়েছে। শিশু দুটির মাথা, হাত, পা, মুখসহ প্রতিটি অঙ্গ প্রত্যঙ্গ আলাদা আলাদা হলেও তাঁদের বুক ও পেটের অংশটি জোড়া লাগানো। শিশু দুটির চিকিৎসা নিয়ে চিন্তায় পড়েছেন তাদের পরিবার।

রোববার (২৯ মে) মাইজদী হাসপাতাল রোডের মা ও শিশু হাসপাতালে সিজারিয়ান অপারেশনের মাধ্যমে দুই কন্যা শিশুর জন্ম হয় ।

শিশুদের দাদা সোনাইমুড়ী উপজেলার আমিশাপাড়া ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ড কাজীরখিলের ইউপি সদস্য মো. মিজানুর রহমান বলেন, গতকাল শনিবার দুপুরে তার ছেলে নুরুল আমিনের স্ত্রী শারমিন আক্তারের প্রসব ব্যথা উঠলে তাকে মা ও শিশু হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে গাইনি চিকিৎসক ডা. শাহানারা আক্তার লিপি সিজারিয়ান অপারেশন করলে বাচ্চা দুটি জন্ম হয়। জন্মের পর দেখা যায় তারা যমজ কন্যা শিশু। কিন্তু তাদের দুজনের বুক ও পেটের অংশ জোড়া লাগানো।

তিনি আরও জানান, শিশু দুটিকে আলাদা করার চিকিৎসায় অনেক টাকা ব্যয় হতে পারে। পরিবারের লোকজনের পক্ষে ঢাকায় নিয়ে চিকিৎসা করানোর খরচ বহন করা সম্ভব হবে না। তাই তিনি সরকার ও উচ্চবিত্তদের সহযোগিতা কামনা করেছেন।

ডা. শাহানারা আক্তার লিপি বলেন, চিকিৎসা বিজ্ঞানের ভাষায় বাচ্চাদের শরীরের জোড়া লাগার অংশটিকে ‘থোরাকো ফেগাস’ বলে। মা’সহ শিশুরা বর্তমানে সুস্থ আছে। তাদের পরিবারের লোকজনকে দ্রুত সময়ের মধ্যে শিশুদের উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার জন্য বলা হয়েছে। কিন্তু তারা এখনো নেননি। ঢামেকে নিয়ে বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ অনুযায়ী অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে তাদের পৃথক করা সম্ভব হবে বলে আশ্বাস দেন এই চিকিৎসক।

শেয়ার করুন