সাংবাদিক নিয়োগঃ
আজকের নোয়াখালী শিক্ষানবীশ সাংবাদিক নিয়োগ - আগ্রহীরা সিভি পাঠিয়ে দিন আমাদের মেইলঃ ajkernoakhali2019@gmail.com এ
নোয়াখালী পৌরসভায় ‘মেয়েকে উত্ত্যক্তের প্রতিবাদ করায় মাকে মারধর’

নোয়াখালী পৌরসভায় ‘মেয়েকে উত্ত্যক্তের প্রতিবাদ করায় মাকে মারধর’

বিশেষ প্রতিনিধি, আজকের নোয়াখালী:   নোয়াখালী পৌরসভার ১নং ওয়ার্ডে মেয়েকে উত্ত্যেক্ত করার প্রতিবাদে মাকে প্রকাশ্যে পিটিয়ে গুরুতর আহত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। অভিযুক্তের নাম আবদুল কাইয়ুম। গত শনিবার (০৯ জানুয়ারি) বিকেলে নোয়াখালী পৌরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ডের উত্তর মাইজদী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আহত নারী নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এ ঘটনায় সুধারাম মডেল থানায় আহত নারী অভিযোগ দায়ের করেছেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, পৌরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা ওই নারীর এক মেয়েকে (২৫) দীর্ঘদিন ধরে আবদুল কাইয়ুম অনৈতিক প্রস্তাব দিয়ে আসছিলেন। শনিবার বিকেলে ওই তরুণী তার মাকে নিয়ে কেনাকাটার উদ্দেশে বাড়ি থেকে বের হন। বাড়ির সামনে রাস্তায় গেলে আবদুল কাইয়ুম তরুণীকে উদ্দেশ্য করে অশালীন মন্তব্য করেন। আবদুল কাইয়ুম মেয়েটির ওড়না ধরেও টান দেন। মেয়েটির মা এর প্রতিবাদ করলে দু’জনের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। তখন আবদুল কাইয়ুমের সহযোগী জুয়েল মোবাইল ফোনে আরও সাত-আটজনকে ডেকে আনে। একপর্যায়ে আবদুল কাইয়ুম ওই নারীর চুলের মুঠি ধরে প্রকাশ্যে টেনেহিঁচড়ে মাটিতে ফেলে এলোপাতাড়ি কিল, ঘুসি ও লাথি মারতে থাকেন। এ সময় মা-মেয়ের চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এলে দুর্বৃত্তরা পালিয়ে যায়। যাওয়ার সময় মা-মেয়েকে অ্যাসিড নিক্ষেপ করার হুমকি দিয়ে যায়।

ওই তরুণী বলেন, এ ঘটনায় পুলিশ শনিবার বিকেলে আবদুল কাইয়ুমকে আটক করে থানায় নিয়ে গেলেও রহস্যজনকভাবে তিনি ছাড়া পেয়ে যান। এ অবস্থায় তারা নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন।

আবদুল কাইয়ুম অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, রায়হান নামের এক যুবকের সঙ্গে পানি সেচ দেওয়া নিয়ে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। তিনি কোনো নারীর গায়ে হাত তোলেননি।

সুধারাম মডেল থানার ওসি শাহেদ উদ্দিন বলেন, ওই নারীকে মারধর বা শ্নীলতাহানির কোনো ঘটনা ঘটেনি। এটা জমি-সংক্রান্ত বিরোধ। এ ঘটনায় উভয় পক্ষ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে। পুলিশ অভিযোগগুলো তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেবে।

শেয়ার করুন