সাংবাদিক নিয়োগঃ
আজকের নোয়াখালী শিক্ষানবীশ সাংবাদিক নিয়োগ - আগ্রহীরা সিভি পাঠিয়ে দিন আমাদের মেইলঃ ajkernoakhali2019@gmail.com এ
নোয়াখালীতে পুলিশের এসআই’র বিরুদ্ধে নারীর শ্লীলতাহানী দুর্নীতিসহ নানা অনিয়মের অভিযোগ

নোয়াখালীতে পুলিশের এসআই’র বিরুদ্ধে নারীর শ্লীলতাহানী দুর্নীতিসহ নানা অনিয়মের অভিযোগ

আজকের নোয়াখালী; বিশেষ প্রতিনিধি:

নোয়াখালী সোনাইমুড়ি থানায় কর্মরত পুলিশের উপ পরিদর্শক (এসআই) ফারুখ হোসাইনের বিরুদ্ধে মানুষ হয়রানি, শ্লীলতাহানী, দুর্নীতি সহ বিভিন্ন অভিযোগ উঠেছে।

সূত্রে জানা যায়, সোনাইমুড়ি বজরার মনির হোসেনের স্ত্রী রূপসা বেগম, একই গ্রামের আবুল কালামের স্ত্রী রাহেলা বেগম, দেউটি ইয়নিয়নের প্রতিশ গ্ররামের শাহ আলমের ছেলে সাংবাদিক দ্বীন ইসলাম, পৌরসভার শিমুলিয়া গ্রামের আমানত রহমানের স্ত্রী রোকেয়া জাহান, পোরকরার রহমতুল্লার ছেলে মোঃ সুজন, সাহার পাড়ের মনিরের স্ত্রী ফাতেমার সাথে এসআই ফারুখ (বিপি- ৮২০২০০৪৬০৪) অশালীন, অশ্লীল ও আপত্তিকর ভাষায় গালিগালাজ, মিথ্যা মামলা জড়ানো, জিডি ও ক্রস ফায়ারের হুমকি দিয়ে অর্থ আদায় করেন।

ভুক্তভোগী বজরার লাল মিয়া ভান্ডার বাড়ির রুপসা বেগম জানান, সিমা নামের এক মহিলা তার বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ করেছে বলে এসআই ফারুখ মধ্যরাতে রুপসা বেগমকে গ্রেফতার করতে তার বাড়িতে যায়, এসময় কোন মহিলা পুলিশ না থাকায় ভুক্তভোগী রুপসা বেগম দারোগা ফারুখের অশালীন আচরণের ভয় পেয়ে পিছন দরজা দিয়ে ঘর থেকে বের হয়ে যায়। পরে তাকে না পেয়ে এসআই ফারুখ খারাপ ভাষায় কথা বললে প্রতিবাদ করায় তার ছোটভাইয়ের বউকে মারধর করে এবং ৫০ হাজার টাকা না দিলে যে কোন সময় তাকে বিভিন্ন মামলার আসামী করে কারাগারে পাঠানোর হুমকি দেয়।

পোরকরা গ্রামের মহিন উদ্দিন জানান, তার উপর পার্শ্ববর্তী সাহারপাড় গ্রামের রুবেলের নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী হামলা চালালে সে থানায় মামলা করেন। এসআই ফারুখ মামলা তদন্তের জন্য ভুক্তভোগী মহিনের কাছ থেকে ৫ হাজার টাকা আদায় করেন।

পুলিশ অভিযোগটি আমলে নিয়ে এর তদন্ত করার দায়িত্ব দিয়েছেন চাটখিল-সোনাইমুড়ি সার্কেলের দায়িত্বপ্রাপ্ত সহকারী পুলিশ সুপার ফারুক হোসেন কে। এ এস পি ফারুখ হোসেন এর তদন্ত শুরু করেন।

সম্প্রতী চাটখিল সার্কেল অফিসের ভুক্তভোগী ৬ জনের মধ্যে দ্বীন ইসলাম ব্যতিত অন্য ৫ জন উপস্থিত হয়ে তারা তাদের অভিযোগ জানান।

এসআই ফারুখ হোসাইন তার বিরুদ্ধে ভুক্তভোগীদের আনা অভিযোগ সমূহ অস্বীকার করেন। তদন্তকারী কর্মকর্তা এ এস আই ফারুখ হোসেন জানান, তিনি ভুক্তভোগীদের অভিযোগ লিপিবদ্ধ করেছেন। তদন্ত প্রতিবেদন জেলা পুলিশ সুপারকে দিবেন। এস আই ফারুখ হোসাইনের বিরুদ্ধে কি ব্যবস্থা নিবেন তা পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ সিদ্ধান্ত নিবেন বলে তিনি জানান।

শেয়ার করুন