সাংবাদিক নিয়োগঃ
আজকের নোয়াখালী শিক্ষানবীশ সাংবাদিক নিয়োগ - আগ্রহীরা সিভি পাঠিয়ে দিন আমাদের মেইলঃ ajkernoakhali2019@gmail.com এ
চৌমুহনীতে ভেজাল পণ্য উৎপাদন, প্রশাসনের সাঁড়াশি অভিযান

চৌমুহনীতে ভেজাল পণ্য উৎপাদন, প্রশাসনের সাঁড়াশি অভিযান

ছবি: আজকের নোয়াখালী।

নুর আলম রুবেল,  আজকের নোয়াখালীু:
নোয়াখালীতে ভেজাল কসমেটিকস ও অবৈধভাবে মানহীন চানাচুর তৈরি করার অপরাধে প্রশাসনের সাঁড়াশি অভিযানে ৫ লক্ষ ৩০ হাজার টাকা জরিমানা এবং ৩ লক্ষ টাকার পণ্য জব্দ করা হয়েছে।
গতকাল বৃহস্পতিবার (১২ মার্চ) দিনভর বেগমগঞ্জ উপজেলার চৌমুহনী বাজার স্টেশন রোড এলাকায় এই অভিযান পরিচালনা করা হয়।
.
এসময় ভেজাল কসমসেটিস পণ্য বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে দোকানে সংরক্ষণ ও বিক্রয় দায়ে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন ২০০৯ মোতাবেক বাবর স্টোর’কে ১লক্ষ ৫০হাজার টাকা জরিমানা ও প্রায় ২লক্ষ টাকার ভেজাল পণ্য জব্দ করা হয়েছে।  এছাড়া অবৈধভাবে বিভিন্ন ব্র্যান্ডের নামে মানহীন চানাচুর তৈরি ও প্যাকেজিং এর দায়ে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন ২০০৯ মোতাবেক মিল্লাত ফুড’কে ২লক্ষ টাকা এবং অনুমোদনবিহীন পলিথিন উৎপাদনের দায়ে বাংলাদেশ পরিবেশ সংরক্ষণ আইন ১৯৯৫ মোতাবেক মক্কা প্যাকেজিং’কে ১লক্ষ ৮০হাজার টাকা জরিমানা ও ১টন অবৈধ পলিথিন জব্দ করা হয়েছে।
.
উক্ত অভিজানে সর্বমোট ৫লক্ষ ৩০হাজার টাকা জরিমানা করে আদায় ও প্রায় ৩লক্ষ টাকার পণ্য জব্দ করে রাষ্ট্রের অনুকূলে বাজেয়াপ্ত করেছেন মোবাইল কোর্ট পরিচালনাকারী এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মো: রোকনুজ্জামান খান। অভিজানে সহযোগিতা করেন জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর নোয়াখালী’র সহকারী পরিচালক কাওছার মিয়া, পরিবেশ অধিদপ্তর নোয়াখালী’র সহকারী পরিচালক তানজিম তারেক এবং আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় সহযোগিতা করেন কোম্পানি কমান্ডার আবু সালেহ এ নেতৃত্বে র‌্যাব-১১ লক্ষ্মীপুর।
অভিজান পরিচালনাকারী এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট (নির্বাহী) রোকনুজ্জামান খান আজকের নোয়াখালী’কে বলেন, স্টেশন রোড এলাকায় ভেজাল কসমেটিকস পণ্য বিক্রির উদ্দেশ্যে দোকানে সংরক্ষণ ও বিক্রির দায়ে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন ২০০৯ মোতাবেক বাবর স্টোরকে ১ লাখ ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। জব্দ করা হয় প্রায় ২ লাখ টাকার ভেজাল পণ্য। অনুমোদন ব্যতীত বিভিন্ন ব্র্যান্ডের চানাচুর তৈরি ও প্যাকেজিং করার দায়ে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন ২০০৯ মোতাবেক মিল্লাত ফুডকে ২ লাখ টাকা এবং অনুমোদনহীন পলিথিন উৎপাদনের দায়ে বাংলাদেশ পরিবেশ সংরক্ষণ আইন ১৯৯৫ মোতাবেক মক্কা প্যাকেজিংকে ১ লাখ ৮০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এছাড়া ১ টন অবৈধ পলিথিন জব্দ করা হয়। অভিযানে মোট ৫ লাখ ৩০ হাজার টাকা জরিমানা ও প্রায় ৩ লাখ টাকার পণ্য জব্দ করে রাষ্ট্রের অনুকূলে বাজেয়াপ্ত করা হয়। বিজ্ঞ জেলা ম্যাজিস্ট্রেট জনাব তন্ময় দাস স্যারের নির্দেশনা ও বিজ্ঞ অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট জনাব তারিকুল আলম স্যারের তত্ত্বাবধানে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযানে দেখা যায় বাবর স্টোর বিভিন্ন ব্র্যান্ডের ভেজাল পণ্য বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে সংরক্ষণ করে পাইকারী ও খুচরা বিক্রয় করে আসছিল। এর মধ্যে রয়েছে প্যারাসুল নাড়িকেল তেল, ইউনিলিভারের বিভিন্ন পণ্য, স্প্রে, সাবান, কসটেপ ইত্যাদি। মিল্লাত ফুড তাদের নিজস্ব চানাচুর ছাড়াও পটেটো, বোম্বে চানাচুরের ভেজাল পণ্য তৈরি, অনুমোদনবিহীন পণ্য বাজারজাতকরণ, ওজনে কম দেওয়া ইত্যাদি ভাবে পণ্য বাজারজাত করছে। জনস্বার্থে মোবাইল কোর্টের অভিযান চলবে বলেও তিনি জানান।

আমাদের ফেইজবুক পেইজ আজকের নোয়াখালী’তে লাইক দিয়ে সাথেই থাকুন….

 

 

শেয়ার করুন