সাংবাদিক নিয়োগঃ
আজকের নোয়াখালী শিক্ষানবীশ সাংবাদিক নিয়োগ - আগ্রহীরা সিভি পাঠিয়ে দিন আমাদের মেইলঃ ajkernoakhali2019@gmail.com এ
টেস্ট ইতিহাসে এই রেকর্ড শুধুই মিরাজের

টেস্ট ইতিহাসে এই রেকর্ড শুধুই মিরাজের


কাল দাঁড়িয়ে ছিলেন ওভার প্রতি গড়ে ৪.৮০ রানে। আজ নিউজিল্যান্ড দল আরেকটু জোরে ধাক্কা দিয়েছে মেহেদী হাসান মিরাজকে। তাতে মিরাজ ছিটকে পড়লেন পাঁচের ঘরে, সোজা কথায় রেকর্ড বইয়ে!

হ্যামিল্টনে মিরাজের এই অগৌরবের উল্লম্ফন কাল হয়তো অনেকেই আন্দাজ করেছিলেন। দ্বিতীয় দিনে ৩১ ওভার বল করে ১৪৯ রান দিয়েছিলেন বাংলাদেশের এই অফ স্পিনার। আজ নিউজিল্যান্ডের প্রথম ইনিংস শেষে মিরাজের বোলিং ফিগার ৪৯-২-২৪৬-২। টেস্টে বাংলাদেশের হয়ে এক ইনিংসে সবচেয়ে বেশি রান দেওয়ার রেকর্ডটি এখন মিরাজের। তাঁর দুঃখের এখানেই শেষ নয়। মিরাজ যে হারে রান দিয়েছেন সেটিও কিন্তু এক ধরনের রেকর্ড।

খোলাসা করে বলা যাক। নিউজিল্যান্ডের প্রথম ইনিংস শেষে মিরাজের বোলিং বিশ্লেষণ করে দেখা যাচ্ছে, ওভার প্রতি তিনি গড়ে ৫.০২ করে রান দিয়েছেন। যেখানে নিউজিল্যান্ড তাঁদের গোটা ইনিংসেই ওভার প্রতি গড়ে ৪.৩৮ করে রান তুলেছে। টেস্টে ব্যাটসম্যানদের ক্ষেত্রে ওভার প্রতি ৩ রান তোলাকে কয়েক বছর আগেও বলা হতো ‘ম্যাজিক ফিগার’। দিন বদলের সঙ্গে ব্যাটিংও আরেকটু আক্রমণাত্মক হওয়ায় এখন তা হয়তো চারে উন্নীত হয়েছে। মিরাজ সেখানে গড়ে পাঁচের ওপরে রান দিয়েছেন, অর্থাৎ একটু নয় বেশ খরচেই ছিলেন এই মুহূর্তেই দেশের সেরা এই অফ স্পিনার। কিন্তু ঠিক কতটা খরচে?

এই হিসেব কষতে গিয়ে ‘কেঁচো খুঁড়তে সাপ’-ই বেরিয়ে পড়ল। কোনো ইনিংসে ন্যূনতম ৪৫ ওভার বল করে ওভারপ্রতি গড়ে ৫ করে রান দিয়েছেন, টেস্ট ইতিহাসে এমন কোনো বোলার আগে ছিল না। এখন আছে, মিরাজের কল্যাণে! ন্যূনতম ৪৫ ওভার হিসেবে নিলে টেস্ট ইতিহাসে মিরাজ-ই একমাত্র বোলার যিনি ওভারপ্রতি গড়ে কমপক্ষে ৫ করে রান দিয়েছেন।

ন্যূনতম ৪০ ওভারের হিসেব কষলে মিরাজ অবশ্য হাঁফ ছেড়ে বাঁচার রসদ খুঁজে পাবেন। কিন্তু সেখানেও কঠিন প্রতিযোগিতা (!)। ৪০ ওভারের বেশি বল করে ওভারপ্রতি ন্যূনতম ৫ রান করে দেওয়া বোলার টেস্ট ইতিহাসেই সর্বসাকল্যে রয়েছেন তিনজন। এর মধ্যে সবশেষ নজির গড়া বোলারটি মিরাজ, তা তো বলাই হলো। আগের দুজন এই ‘কীর্তি’ গড়েছেন এই একবিংশ শতাব্দীতেই এবং দুবারই প্রতিপক্ষ অস্ট্রেলিয়া।

২০০৩ সালে ব্রিজটাউন টেস্টে অস্ট্রেলিয়ার প্রথম ইনিংসে ৪০ ওভার বল করে ২০৪ রান (ওভারপ্রতি ৫.১০) দিয়েছিলেন উইন্ডিজ অফ স্পিনার ওমারি ব্যাঙ্কস। এর ১৩ বছর পর ২০১৬ সালে মেলবোর্ন টেস্টে অস্ট্রেলিয়ার সেই প্রথম ইনিংসে-ই ৪১ ওভারে ২০৭ রান দিয়েছিলেন পাকিস্তানি লেগি ইয়াসির শাহ (ওভারপ্রতি ৫.০৪)। মিরাজ এই তালিকায় দুজনের পেছনে থাকলেও ওভারের হিসেব ৪৫ থেকে শুরু করলে পাঁচের (ওভারপ্রতি রান) ঘরে তিনি একাই। এই তালিকায় (ন্যূনতম ৪৫ ওভার) শীর্ষ পাঁচে থাকা বোলারদের মধ্যে চারজনই অফ স্পিনার!

মিরাজ তো শীর্ষে, দুইয়ে যিনি শুধু তিনি-ই শীর্ষ পাঁচের মধ্যে একমাত্র পেসার। পাকিস্তানের খান মোহাম্মদ। ১৯৫৮ সালে কিংস্টনে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে এক ইনিংসে ৫৪ ওভার বল করে গড়ে ৪.৭৯ হারে রান দিয়েছিলেন এই পেসার। পরের তিন স্পিনার যথাক্রমে—সাকলায়েন মুশতাক (৫০ ওভারে গড়ে ৪.৭৪ রান, দক্ষিণ আফ্রিকা, ২০০৩), নাথান লায়ন (৪৭ ওভারে ৪.৪৭ রান, ভারত, ২০১৩) ও দিলরুয়ান পেরেরা (৪৫ ওভারে গড়ে ৪.৪৮ রান, ভারত, ২০১৭)।

শেয়ার করুন