সাংবাদিক নিয়োগঃ
আজকের নোয়াখালী শিক্ষানবীশ সাংবাদিক নিয়োগ - আগ্রহীরা সিভি পাঠিয়ে দিন আমাদের মেইলঃ ajkernoakhali2019@gmail.com এ
‘ডেমোক্রেসি ইন্টারন্যাশানাল’ নোয়াখালী জেলা শাখার পক্ষ থেকে জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বরাবর স্মারকলিপি প্রদান নোয়াখালীতে ছাত্রলীগের উদ্যোগে ইফতার ও দোয়া মাহফিল নোয়াখালীতে ৩খুনের মামলার আসামী গ্রেফতার ও বিচারের দাবীতে মানববন্ধন ব্যারিস্টার মওদুদের মৃত্যুতে নোয়াখালী বিভাগ আন্দোলনের শোক বার্তা মারা গেছেন বিএনপি নেতা ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ ইতালীর হাসপাতালে মারা গেলেন নোয়াখালীর আনোয়ারা বেগম নোয়াখালীতে মেয়রের গ্রেফতারের দাবিতে হেফাজতের বিক্ষোভ সমাবেশ নোয়াখালীতে করোনা টিকা প্রয়োগ শুরু, প্রথম টিকা নেবেন এমপি একরাম ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন এর চাটখিল উপজেলা শাখার কমিটি ঘোষণা ‘অবশেষে হরতাল প্রত্যাহার’ করলেন বসুরহাট পৌরসভার আলোচিত মেয়র আবদুল কাদের মির্জা
সৈনিক আরাফ এর ছোটগল্প ‘নেপথ্যের সৈনিক’

সৈনিক আরাফ এর ছোটগল্প ‘নেপথ্যের সৈনিক’

.

লেখক:  সৈয়দ আরাফ

কিংকর্তব্যবিমূঢ় হয়ে লেকের পাড়ে সেগুন গাছটির নিচে বসে আছে জাহিদ। রাঙ্গামাটির জীবতলীতে কাপ্তাই লেকের পাড়ে এ জায়গায়টা জাহিদের খুবই পছন্দের। সাধারণত এখানে বসলে এক চমৎকার প্রশান্তিতে মন ছুঁয়ে যায় তার।

প্রায় ৭ বছর আগে সৈনিক হিসেবে যোগদানের পরে ট্রেনিং শেষ করেই এখানে বদলি আসে সে। অত্যন্ত সততা, নিষ্ঠা ও দক্ষতার সাথে চাকুরী করার সুবাদে সম্প্রতি আইভরিকোস্টে জাতিসংঘ শান্তিরক্ষী মিশনে নাম আসে তার।
গত বছর ২ বছরের সম্পর্কের সূত্রে পারিবারিকভাবে অর্থির সাথে তার বিয়ে হয়। সবকিছু ঠিকঠাক ভাবেই চলছিল। গত ৩ মাস আগে মিশনের মেডিকেল সম্পন্ন করে ঢাকা থেকে ফেরার পথে অর্থির সাথে কয়েকঘন্টার জন্য দেখা হয়েছিল। ওটাই ছিল তাদের শেষ দেখা, এরপরেই মহামারী করোনার করাল গ্রাসে দেশজুড়ে লকডাউন শুরু হলো।
একে একে তাদের দেখা হবার সমস্ত সম্ভবনা শেষ হতে লাগলো। অর্থি বাসায় বন্দি, জাহিদ তার ক্যান্টনমেন্টে বন্দি। তাদের ভালবাসা বিনিময়ের একমাত্র মাধ্যম হয়ে উঠলো মোবাইল। সারাদিনের অলস সময় তারা ফোনে কথোপকথনের মাধ্যমেই কাটাতো।
নব বিবাহিতদের এ এক সমস্যা, যত কথা বলবে তত দুজন দুজনকে কাছে পাওয়ার আগ্রহ প্রবল হয়। কিন্তু বিধিবাম, দূর্যোগপূর্ণ মহামারীতে দুটি অভিন্ন আত্মা আজ ৩০০ মাইল দূরত্বে অবস্থান করছে। যতই দিন যাচ্ছে, দুজনের অস্থিরতা ততই বাড়ছে।
জাহিদ মানসিকভাবে ভেঙ্গে পড়লেও অর্থি তাকে পরিস্থিতি বিবেচনায় শান্ত রাখার চেষ্টা করে।
যতই দিন যাচ্ছে, জাহিদ প্রচন্ডভাবে ফ্রাস্ট্রেটেড হয়ে পড়ছে।
এদিকে নতুন করে বিপত্তি বাধালো বেরসিক করোনা!
এতদিন ক্যান্টনমেন্ট এরিয়ায় করোনার থাবা থেকে নিরাপদ থাকলেও গত ৩ দিনে প্রায় ৭ জন করোনা পজিটিভ হয়। আরো প্রায় ১৭ জনের মত উপসর্গ নিয়ে কোয়ারেন্টাইনে অবস্থান করছে!
ক্যান্টনমেন্ট এলাকার নিরাপত্তা ব্যবস্থা আরো জোরদার করা হলো। জরুরি ডিউটি ব্যতীত ব্যারাক ত্যাগে নিষেধাজ্ঞা আসলো।
এরকম অবস্থায় জাহিদ আরো বিচলিত হয়ে পড়ে।
সারাদিন চিন্তা-ভাবনা করে উদ্ভুত পরিস্থিতি থেকে উত্তরণের পথ খুঁজতে লাগলো। কোনরকম পথ না পেয়ে উদ্ভান্তের মত লেকের পাড়ে গিয়ে বসলো।
এরই মাঝে অর্থির ফোন;
– হ্যালো!
– কি করছো?
– পালানোর পথ খুঁজছি!
– পেয়েছো?
– পেয়ে যাবো।
– আচ্ছা পালাচ্ছো কেন?
– একদিকে নিজের প্রাণভয়, অন্যদিকে তোমাকে দেখার তৃষ্ণায় কাতর হয়ে আছি, এছাড়া আর কি বা করার আছে বলো?
– আচ্ছা বুঝলাম। তো কার কাছে যাচ্ছো?
– আজব তো! তোমার কাছে ছাড়া কার কাছে যাবো?
– তার মানে কি দাঁড়ালো? তুমি করোনার ভয়ে প্রিয়তমার শাড়ির আঁচলে মুখ লুকিয়ে বাঁচতে চাও?
– ব্যাপারটা ঠিক তা না…..
– চুপ করো! তুমি ভুলে যাচ্ছো তুমি একজন সৈনিক, এরকম বৈরী পরিস্থিতিতে সার্ভাইভ করে বিজয়ীর বেশে ফিরে আসাতেই তোমাকে বেশি মানায়। তুমি এখন চলে আসা মানে তুমি হেরে গেলে। এটাও প্রমানিত হয় যে তুমি যুদ্ধের জন্য আনফিট! যুদ্ধ বাঁধলে তুমি পিঁছু হটবে, এটা কি তোমাকে মানায় বলো? বরং সকল প্রতিকূলতা পেরিয়ে তুমি বা তোমাদের হাত ধরে আমি বা আমরা নতুন করে বাঁচতে শিখবো, এটাই তো হওয়া উচিৎ!
অন্তত একজন সৈনিক পত্নী হয়ে এটাই আমার দর্শন, বাকিটা তোমার ইচ্ছা।

একনাগাড়ে কথাগুলো বলে থামলো অর্থি!
জাহিদ যেন ঘোরের মধ্যে ছিল এতক্ষণ। হঠাৎ করেই তার ভ্রম কেটে যেতে লাগলো। নিজের অজান্তেই বলে উঠলো,
‘কে আমি? কি করছি আমি?’

লেকের পাড়ের সবুজ ঘাসের উপর ত্রস্তপদে পা মাড়িয়ে ব্যারাকের দিকে ছুটলো জাহিদ!
ড্রেস চেঞ্জ করে অফিসের দিকে রওনা করলো সে।
পিছন থেকে কলিগ ডাক দিলো,
– এই অবেলায় কই যাস?
– অফিসে, করোনা আক্রান্তদের সেবার জন্য ভলান্টিয়ার হিসেবে নাম ফরোয়ার্ড করার আজই শেষ দিন……..

(খুবই সাধারণ একটা গল্প, অথচ প্রতিনিয়ত এরকম অসংখ্য মোটিভেশনাল গল্প দিয়ে যারা আমাদের মনোবল বাড়িয়ে দেশের তরে নিবেদিত রাখতে সাহায্য করে, তাঁরা থেকে যায় অন্তরালে! দেশের স্বার্থে আমাদের সরব উপস্থিতি ও সফলতা পেছনে নীরব ত্যাগের গল্পগুলো রয়ে যায় অজানা!
সে সকল সৈনিকজায়াদের জন্য অন্তরের অন্তস্থল থেকে রইলো লাল সালাম)

 

.

 

.

আরো পড়ুন….

অর্ধাঙ্গীনির কাছে একজন সৈনিকের খোলা চিঠি….

সৈনিক আরাফ এর লেখা ছোটগল্প `অসমাপ্ত আলিঙ্গন’

 

 

২৪ ঘন্টার যে কোনো আপডেট খবর জানতে আমাদের ফেইজবুক পেইজ আজকের নোয়াখালী’তে লাইক দিয়ে সাথেই থাকুন…

.

 

 

শেয়ার করুন