সাংবাদিক নিয়োগঃ
আজকের নোয়াখালী শিক্ষানবীশ সাংবাদিক নিয়োগ - আগ্রহীরা সিভি পাঠিয়ে দিন আমাদের মেইলঃ ajkernoakhali2019@gmail.com এ
‘ডেমোক্রেসি ইন্টারন্যাশানাল’ নোয়াখালী জেলা শাখার পক্ষ থেকে জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বরাবর স্মারকলিপি প্রদান নোয়াখালীতে ছাত্রলীগের উদ্যোগে ইফতার ও দোয়া মাহফিল নোয়াখালীতে ৩খুনের মামলার আসামী গ্রেফতার ও বিচারের দাবীতে মানববন্ধন ব্যারিস্টার মওদুদের মৃত্যুতে নোয়াখালী বিভাগ আন্দোলনের শোক বার্তা মারা গেছেন বিএনপি নেতা ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ ইতালীর হাসপাতালে মারা গেলেন নোয়াখালীর আনোয়ারা বেগম নোয়াখালীতে মেয়রের গ্রেফতারের দাবিতে হেফাজতের বিক্ষোভ সমাবেশ নোয়াখালীতে করোনা টিকা প্রয়োগ শুরু, প্রথম টিকা নেবেন এমপি একরাম ইসলামী শাসনতন্ত্র ছাত্র আন্দোলন এর চাটখিল উপজেলা শাখার কমিটি ঘোষণা ‘অবশেষে হরতাল প্রত্যাহার’ করলেন বসুরহাট পৌরসভার আলোচিত মেয়র আবদুল কাদের মির্জা
এক হালি পেঁয়াজের দাম ৪০ টাকা!

এক হালি পেঁয়াজের দাম ৪০ টাকা!

আজকের নোয়াখালী, বিশেষ প্রতিনিধি:
এবার ৪০ টাকা হালি দরে পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে। একটি ডিমের চেয়েও বেশি দামে একটি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে। দেশের বিভিন্ন স্থানে পেয়াজের বাজারে এমন লাগামহীন অবস্থা বেশ কিছুদিন থেকে লক্ষ করা যাচ্ছে।
আজ বৃহস্পতিবার (০৭ নভেম্বর) নোয়াখালীর চৌমুহনী সহ জেলা শহরের বিভিন্ন বাজারে কেজি প্রতি ১৩০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে বলে জানা যায়। অথছ এক হালি ডিম বিক্রি হচ্ছে ৩২ টাকায়।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, পৌর শহরের বিভিন্ন দোকানে ব্যবসায়ীরা প্রতি কেজি পেঁয়াজ ১২০-১৩০ টাকায় বিক্রি করছেন। কিছু ব্যবসায়ী আবার ১৩৫-১৪০ টাকায় বিক্রি করছেন বলে অভিযোগ রয়েছে। তবে গ্রামের বাজারগুলোতে নিন্ম আয়ের মানুষগুলো ৪০ টাকা হালিতে কিনছেন পেঁয়াজ। সেখানে প্রতি কেজি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ১৪০-১৬০ টাকায়। তবে এ অভিযোগ অস্বীকার করছেন ব্যবসায়ীরা।
ব্যবসায়ীরা বলছেন, পাইকারি বাজারের বিক্রেতাদের কাছ থেকে তাঁরা বাধ্য হয়ে বেশি দামে পেঁয়াজ কিনে আনছেন। পরিবহন ও শ্রমিকের মজুরিসহ প্রতি কেজি পেঁয়াজের দাম প্রায় ১১৫-১১৮ টাকাও বেশি পড়ে যায়। কোনো কোনো দিন পাইকারি বাজার থেকেও ১২০ টাকায় কিনতে হচ্ছে। দাম বেশি হওয়ায় ক্রেতাদের সঙ্গ সম্পর্ক নষ্ট হওয়ার আশঙ্কায় অনেক ব্যবসায়ী আপতত পেঁয়াজ বিক্রি বন্ধ করে দিয়েছেন।
আবু সুফিয়ার নামে এক শ্রমিক বলেন, পেঁয়াজের দাম বেশি হওয়ায় গতকাল সকালে তিনি জেলা শহরের পৌর বাজার থেকে ৪০ টাকা দিয়ে ৪টি পেঁয়াজ কিনেছেন। তিনি বলেন, গত রোববার এক কেজি আলু কিনেছেন ১৮ টাকায় আর সে আলু গতকাল কিনেছেন ২৫ টাকা দিয়ে। ১০ টাকার ধনিয়া পাতা কিনেছেন ২০ টাকায়।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) বলেন, পেঁয়াজের দাম নিন্ম আয়ের মানুষের ক্রয় ক্ষমতার মধ্যে রাখতে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে বাজারগুলোতে তদারকি করা হচ্ছে। তবে ব্যবসায়ীরা জানিয়েছেন, পাইকারি বাজারে পেঁয়াজের দাম বেশি পড়ায় তাঁরা বিপাকে পড়েছেন। কেউ কেউ অতিরিক্ত দামে পেঁয়াজ বিক্রি করছে বলেও তিনি শুনেছেন।

শেয়ার করুন